লকডাউনের অনুভূতি

আমার মনে হচ্ছে যেন এই পৃথিবীর পৃষ্ঠে আমি একা

আমার অগ্রে পশ্চাতে কেও নেই

আছে শুধু গাছের ডালে পাখিদের কোলাহল

ওরা যেন আমার আত্মজীবনির চলচ্চিত্রে দিচ্ছে আবহ সংগীত

ঘুগুপাখি কোয়েল পাখি আরো অনেক অনেক।

আমার মনে হচ্ছে যেন আমি একাই এগিয়ে চলেছি

আমার জীবনকে বাজী রেখে পৃথিবীকে পুনর্জীবিত করার জন্য

পৃথিবীতে সকল জীবকুলের জীবনকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য।

আজ আমি ছাড়া অন্যরা সবাই করোনার ভয়ে চার দেওয়ালের মধ্যে অবরুদ্ধ

আজ ওড়ছেনা ওড়োজাহাজ , ছুটছেনা ট্রেন ট্রাম বাসগাড়ি

নেই ইঞ্জিনের আওয়াজ ; ফ্লায়োভার হাইওয়ে আজ নিস্তব্ধ।

আজ অবধি চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা করোনার চিকিৎসায় পায়নি পূর্ন সফলতা

কেও জানেনা আর কতদিন পরে মানব জীবনে ফিরে আসবে স্বাভাবিকতা।

তবুও সবাই বেঁচে থাকার সপ্নকে সাথী করে

পালন করছে সামাজিক দূরত্ব

এই সুযোগে রাজনৈতিক নেতারা দেখাচ্ছে মানবতার প্রমাণ

আর ধর্মীয় নেতারা ভাঁওতাবাজিতে ব্যস্ত

কাঁসর ঘণ্টা বাজিয়ে, মোমবাতি জ্বালিয়ে

করোনা নির্মূলের জন্য উপস্থাপন করছে অবৈজ্ঞানিক তত্ব।

আমার মনে হচ্ছে যেন আমি একাই এগিয়ে চলেছি

নদীর জলস্তর দেখতে

আরও দেখছি প্রতিদিন আকাশ, বাতাস, সূর্যের প্রখরতা

অতি বেগুনী রশ্মির তীব্রতা ইত্যাদি…।

আমার মনে হচ্ছে যেন পৃথিবীর মতো আমারও নেই কোন বিশ্রাম

আমার মনে হচ্ছে যেন পৃথিবীর মতো আমারও নেই কোন বিশ্রাম।।