কেরালায় গর্ভবতী হস্তিনী হত্যা ঘটনাকে কেন্দ্র করে রচিত প্রতিবাদী কবিতা

কবিতার নাম – নেই কোন ক্ষমা
কলমে – গুরাই কিস্কু

হারিয়ে গেছে মনুষ্যত্ব
হারিয়ে গেছে মন
হারিয়ে গেছে মান
হারিয়ে গেছে হুঁশ
হারিয়ে গেছে মায়া
হারিয়ে গেছে মমতা
নিভৃতে কাঁদে মানবতা।

জাহির করে ক্ষমতা
নৃশংস মানুষ জন।

অবলা নিরীহ হস্তিনী
গর্ভে নিষ্পাপ শাবক
জানেনা কিছু, থাক
নির্বাক ব্যাথা ভরা বার্তা।

মাতা চাহে,– শিশুকে
নিরাপদে ভৃমিষ্ট করতে
নেমে ছিল স্রোতস্বিনী জলে
পৃথিবীর আলো দেখাবে বলে।
কিন্তু, পরেনি–।
বোমা ফেটে
পেট খানখান।
চোখে জল
শরীর টলমল
নিভ প্রদীপ
তিমি তল
আসাড় ঢল।
ভাবে ভোর
নিষ্ঠুর জন।

যদি, পশু না হয়ে
কোন স্বজন হতো
বুকে ব্যাথা বইতে
পারতে কি তুমি?

আসতো বুক ভরা কান্না
জুড়ে যেতো ধরণা।
শুধু আকাশে বাতাসে
উঠতো ধ্বনি –‘.. হত্যাকারীর
শাস্তি চাই। শাস্তি চাই। ‘

আজ জেগে ওঠ
জীবে প্রেম কর যে জন
সুরে সুর মিলিয়ে বলি–
যাহারা দিয়াছে আনারসে বোমা
তাহাদের নেই কোন ক্ষমা।।

০৪/০৬/২০২० রানীবাঁধ