বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস

WORLD POPULATION DAY

১১ জুলাই হোল বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস। এই বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসটি ১৯৮৯ সালে জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচির পরিচালনা পরিষদ দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এটি বিশ্ব জনসংখ্যার বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানোর জন্য এই অনুষ্ঠানটি ১৯৮৭ সালের ১১ জুলাই পাঁচ বিলিয়ন মানুষের সমন্বয়ে সম্পন্ন হয়েছিল।

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের মূল লক্ষ্য হোল পরিবার পরিকল্পনা, লিঙ্গ বৈষম্যের সাম্যতা, দারিদ্র্য সচেতনতা, মাতৃস্বাস্থ্য এবং মানবাধিকারের মতো বিভিন্ন জনসংখ্যার বিষয়ে জনগণের সচেতনতা বৃদ্ধি করা।

এই বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসটির পরামর্শ দিয়েছেন সেই সময়ের বিশ্বব্যাংকে সিনিয়র ডেমোগ্রাফার  ডাঃ কে সি জাকারিয়া।

বিশ্বব্যাপী জনসংখ্যার মধ্যে আগ্রহ এবং সাধারণ সচেতনতা সত্বেও বিশ্বে প্রতি ১৪ মাসে আনুমানিক ১০০ মিলিয়ন জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখে বিশ্বের জনসংখ্যা ছিল ৭,৪00,000,000; এবং ২৪ শে এপ্রিল ২০১৭ তারিখে বিশ্বের জনসংখ্যা ৭,৫০০,০০০,০০০-এর কাছাকাছি পৌঁছেছিল এবং ২০১৯ সালে বিশ্বে জনসংখ্যা হয়েছে ৭,৭00,000,000।

সম্প্রতি নভেম্বর মাসে ইউএনএফপিএ (The United Nations Population Fund), কেনিয়া এবং ডেনমার্কের সরকারগুলির সাথে একত্রিত হয়ে, এই আনমেট লক্ষ্য অর্জনের প্রচেষ্টা ত্বরান্বিত করার জন্য নাইরোবিতে একটি উচ্চ-স্তরের সম্মেলন আহ্বান করেছিল এবং বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসে বিশ্বের বিচারক নেতৃবৃন্দ, নীতিনির্ধারক, তৃণমূল সংগঠক, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং অন্যদেরকে প্রজনন স্বাস্থ্য এবং মানবাধিকারকে সকলে একত্রিত হয়ে বাস্তবায়িত করার আহ্বান জানিয়েছেন।