তৃণমূলের দল পরিচালনার দায়িত্বে আদিবাসী। পড়বে ক্ষতে প্রলেপ?

আরসাল ডেস্কঃ- “কত সাধনার ফলে এই সুর আমি পেলাম…” কত কষ্ট করে সরকার গঠন করলাম।- হয়তো এমনই ভাবছেন বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মাননীয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু কষ্ট যেন না বৃথা হয় সেইজন্য এবার সাধনায় বসলেন তৃনমূল সুপ্রিমো।

আগামী ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে পুনরায় জয়লাভ করার জন্য এবার রাজ্য কমিটির শীর্ষ পদগুলিতে প্রচুর রদবদল করলেন। এবার আদিবাসী অধ্যুষিত জেলাগুলিতে কেবলমাত্র আদিবাসী সাঁওতাল নেতা নেত্রীদেরকেই শীর্ষ পদের চেয়ারে বসালেন। বিরোধীদের ধারনা; যাতেকরে আদিবাসিদের ভোটব্যাঙ্ক বিরোধিদের হাতে না চলে যায় সেইজন্য আদিবাসী অধ্যুষিত জেলার সভাপতি পদে কেবল সাঁওতালদেরকেই স্থান দিয়েছেন।

তৃনমূল কংগ্রেস এর রাজ্য কমিটির সহ সভাপতি মণ্ডলীতে ও কোর কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে ডাঃ সুকুমার হাঁসদাকে, সাধারণ সম্পাদক মণ্ডলীতে স্থান দেওয়া হয়েছে রানিবাধ বিধানসভার বর্তমান বিধায়িকা জ্যোৎস্না মান্ডিকে, ঝাড়গ্রাম জেলা কমিটির চেয়ারম্যান করা হয়েছে বিরবাহা সরেন টুডুকে, বাঁকুড়া জেলার কোঅরডিনেটর হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে বর্তমান সভাধিপতি মৃত্যুঞ্জয় মুরমুকে, ঝাড়গ্রাম জেলা কমিটির জেলা সভাপতি করা হয়েছে নয়াগ্রামের বর্তমান বিধায়ক দুলাল মুরমুকে, পুরুলিয়া জেলা কমিটির জেলা সভাপতি করা হয়েছে গুরুপদ টুডুকে এবং বাঁকুড়া জেলা কমিটির জেলা সভাপতি হয়েছেন শ্যামল সাঁতরা।